অপরাধফিচার

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে কৃষকের লাশ উদ্ধার

হাত পা বাঁধা অবস্থায় আবাদি জমি থেকে কৃষকের লাশ উদ্ধার

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় নজির উদ্দিন (৫৯) নামের এক কৃষকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার (১৭ এপ্রিল) সকাল ৬টায় বাগুলাট ইউনিয়নের ভড়ুয়াপাড়া গ্রামের একটি আবাদি জমি থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত নাজির উদ্দিন ওই গ্রামের মৃত হায়াত আলীর ছেলে।

এলাকাবাসী জানায়, স্থানীয় আওয়ামী লীগ সমর্থিত গোলাম সরোয়ার, দুলাল ও জাহিদ গ্রুপের সঙ্গে বাবলু, মনোয়ার ও আনোয়ার গ্রুপের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এরমধ্যে গত ২৫ জানুয়ারি বাবলু গ্রুপের সবুর নামের এক কৃষকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে নিহতের ছেলে থানায় সরোয়ার গ্রুপের লোকজনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলা নিয়েও দু’পক্ষের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা চলছিল।

এরমধ্যে শনিবার সকাল ৬টায় সরোয়ার গ্রুপের নজিরউদ্দিনের মরদেহ আবাদি জমিতে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয় গ্রামবাসী। নিহত নজিরউদ্দিনের ছেলে মিরাজ বলেন, বাবা প্রায়ই পুকুর পাড়ের বাঁশের চরাটের ওপর রাতে শুয়ে থাকতেন। গতকাল রাত ১২টার দিকেও তিনি সেখানেই ঘুমিয়েছিলেন। সকাল ৬টায় চাচী শিউলী খাতুন আমাকে জানান, বাবা বাড়ির রজব মোল্লার জমিতে ঘুমাচ্ছেন। আমি দ্রুত মাঠে গিয়ে দেখি বাবার হাত ও পা বাঁধা। উপুর হয়ে পড়ে আছেন। চোখে মুখে রক্ত ও আঘাতের চিহ্ন।

তিনি আরো বলেন, আমি একজন সাধারণ ভ্যানচালক। আমাকে সবুর হত্যা মামলার আসামি করা হয়েছে। আমার ধারণা, পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষরা এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন, নজিরউদ্দিন নামের একজনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।তিনি আরো বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Tags
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker