আন্তর্জাতিকখেলাধুলা

১১৭টি গোলে অবদান—ব্রাজিলের জার্সি গায়ে নেইমার রীতিমতো ‘অবিশ্বাস্য’ই।স্বপ্ন পূরণ হবে কি নেইমারের।

১১৭টি গোলে অবদান—ব্রাজিলের জার্সি গায়ে নেইমার রীতিমতো ‘অবিশ্বাস্য’ই।স্বপ্ন পূরণ হবে কি নেইমারের।

কোপা আমেরিকার ফাইনালে ব্রাজিল উঠছে, এটা অনুমিতই ছিল। এই ব্রাজিলকে সেমিফাইনালে পেরু হারিয়ে দিলে সেটা অঘটন হতো বৈকি। অবশ্য পুরো টুর্নামেন্টে ব্রাজিল যেভাবে খেলেছে, তাতে শেষ চারে গতকাল ১-০ গোলের জয়টাকেই বরং কিছুটা ম্লান লাগছে। এর চেয়ে ঢের ভালো ব্রাজিল আগে বেশ কয়েকটা ম্যাচে খেলেছে।

ফাইনালের টিকিট কেটেই নেইমার মনের কথাটি বলে দিলেন,‘আর্জেন্টিনাকে ফাইনালে চাই।’ আসলে বোঝাতে চেয়েছেন, শিরোপা জেতার স্বপ্ন যখন দেখেছেন, পরাশক্তি ও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের হারিয়েই জিততে চান। তাহলেই না বাড়ে জয়ের মাহাত্ম্য। যে কারণে নেইমার ফাইনালে উঠেই বলেছেন, অন্য সেমিফাইনালটায় তিনি আর্জেন্টিনার সমর্থক! নাহ্, ব্রাজিল-ভক্তদের চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। বন্ধু মেসির প্রতি তাঁর দুর্বলতা থাকতেই পারে, কিন্তু ফাইনালে সেই বন্ধুর দলকে পেলে ‘শত্রু’ হয়ে যেতে ভুল করবেন না নেইমার।ভালো কথা, কোপার ফাইনালে ব্রাজিলের সঙ্গী আর্জেন্টিনা হচ্ছে তো? লেখাটা যখন পাঠকেরা পড়ছেন, তখন দ্বিতীয় সেমিফাইনালের এসপার-ওসপার হয়ে গেছে। বিশ্বের তাবৎ ফুটবলপ্রেমীরা জেনে গেছেন স্বপ্নের ফাইনালটা হচ্ছে কি না। তাহলেই না সুযোগ তৈরি হবে নেইমারদের স্বপ্নপূরণের।

আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল ম্যাচ মানেই অন্য রকম এক রোমাঞ্চ। এ ম্যাচের সম্ভাবনার হদিস পেয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমও কিন্তু এরই মধ্যে উত্তপ্ত। এই তো সেদিন ইকুয়েডরের বিপক্ষে কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার ফাইনালে মেসির সেই দুরন্ত ফ্রি-কিকের গোল নিয়ে আর্জেন্টিনা সমর্থকেরা দুকথা লিখেছেন কী লিখেননি, ব্রাজিল সমর্থকেরা নানা জায়গা থেকে রবার্তো কার্লোসের বিভিন্ন সময়ে করা ফ্রি-কিকের গোলের ভিডিও ভাইরাল করে ফেললেন। এমন পাল্টাপাল্টি না হলে আর ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দ্বৈরথের মজা কোথায়!

মেসি এবারের কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনার শক্তির উৎস, ব্রাজিলের বেলায় নেইমারও ঠিক তা-ই । গোটা টুর্নামেন্টেই নেইমার-জাদুর পরশেই দুর্দান্ত ব্রাজিল। পেরুর বিপক্ষে ম্যাচেও তো বাঁ প্রান্ত থেকে নেইমারের বাড়িয়ে দেওয়া বলেই গোল করে দলকে জেতালেন লুকাস পাকেতা। নেইমারের কাঁধে সওয়ার হয়েই তো ব্রাজিলের এগিয়ে যাওয়া। কোপার একটি ম্যাচেই নেইমারকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল। ইকুয়েডরের বিপক্ষে সে ম্যাচটা ড্র করে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল তাদের। নেইমার যে ব্রাজিলের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ, সেটা বোঝা যাবে একটা পরিসংখ্যানেই। ব্রাজিলের জার্সিতে ১১০ ম্যাচ খেলে ৬৮ গোল করেছেন। ৪৯ বার সতীর্থদের গোল করতে সহায়তা করেছেন। সব মিলিয়ে ১১৭টি গোলে অবদান—ব্রাজিলের জার্সি গায়ে নেইমার রীতিমতো ‘অবিশ্বাস্য’ই।

Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker