অপরাধ

সংঘবদ্ধ আন্তঃজেলা গরু চোর চক্রের সক্রিয় সদস্যরা আটক,

গত ২৩/০৩/২০২১ ইং তারিখ দিবাগত রাত ২৪/০৩/২১ ইং তারিখ ০৩:৪৫ ঘটিকার সময় অজ্ঞাতনামা চোরেরা জনৈক বেলাল হোসেন (৪০), পিতা-মোঃ হানিফ, মাতা- খোদেজা বেগম, সাং-পাড়াগাঁও, প্রধানিয়া বাড়ী, থানা-কচুয়া জেলা-চাঁদপুর এর গোয়াল ঘরের তালা ভাঙ্গিয়া ১। একটি খয়রী লাল রংয়ের গাভী, মূল্য অনুমান ৫৫,০০০/-টাকা, ২। একটি লাল রংয়ের ২৬ মাসের ধামরি বাছুর, অনুমান মূল্য ২৫,০০০/-টাকা, ৩। একটি কালো রংয়ের ষাঁড় বাছুর, অনুমান মূল্য ৩০,০০০/- টাকা চুরি করিয়া পিক-আপে উঠাইয়া নিয়া যায়। মোঃ বেলাল হোসেন এর দায়ের করা এজাহারের ভিত্তিতে কঁচুয়া থানার মামলা নং-৩৮, তারিখ- ২৪/০৩/২০২১ ইং, ধারা- ৪৫৭/৩৮০ পেনাল কোড রুজু হয়। পরবতীতে চাঁদপুর জেলার পুলিশ সুপার, জনাব মোঃ মিলন মাহমুদ (বিপিএম-বার) স্যার এর সার্বিক নির্দেশনায়, কচুয়া সার্কেল অফিসার, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, জনাব মোঃ আবুল কালাম আজাদ চৌধুরী স্যারের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করিয়া উক্ত গরু চুরির মামলার সন্দিগ্ধ আসামীঃ- ১. মোঃ আলী (৪০), পিতা- মৃত লাল মিয়া মুন্সি, মাতা- মৃত রত্মা বেগম গ্রাম- দক্ষিণ বিতারা, পাড়া মুন্সি বাড়ী, থানা- কঁচুয়া, চাঁদপুর, ২. মোঃ আবু ইউসুফ (৫০), পিতা- মৃত লাল মিয়া, মাতা- মৃত সুফিয়া খাতুন, গ্রাম- কুদুটি, বেপারী বাড়ী, থানা- চান্দিনা, জেলা-কুমিল্লা, ৩. মোঃ ইসমাইল (২৮), পিতা- মোঃ সেলিম, মাতা- বকুল বেগম, গ্রাম- কুটিয়া লক্ষীপুর, বেপারী বাড়ী, পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ড, ৪. মোঃ সেলিম মুন্সি (৪০), পিতা- আলী আকবর, মাতা- খোরশেদা, গ্রাম- সফিবাদ, মুন্সি বাড়ী, ৫. জাকির হোসেন (৫০), পিতা- মৃত হাফিজ উদ্দিন, মাতা-মৃত রাবেয়া বেগম, গ্রাম- সফিবাদ, মোল্লা বাড়ী, ৬. আমির হোসেন (৪৫), পিতা- মৃত আঃ ছাত্তার, মাতা- মৃত জুলেখা বেগম, গ্রাম- সফিবাদ, ভোলা গাজী বাড়ী, ৭. মোঃ আনোয়ার (৫০), পিতা- মৃত আঃ কাদের, মাতা- মৃত আরবের নেছা, গ্রাম- কেশর কোর্ট, নতুন বাড়ী, থানা- কঁচুয়া, জেলা-চাঁদপুর, ৮. ইমান হোসেন (৫০), পিতা- মৃত বশির উদ্দিন, মাতা- সান বানু, গ্রাম- কেশর কোর্ট, নতুন বাড়ী, ৯. মোঃ সফিকুল ইসলাম (৩৩), পিতা- তুরাব আলী, মাতা- মৃত জুরুফা বেগম, গ্রাম- কুটিয়া লক্ষিপুর, বেপারী বাড়ী, সর্ব থানা- কঁচুয়া, জেলা-চাঁদপুরদের গ্রেফতার করি। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে জনশ্রুতি আছে যে, তাহারা সংঘবদ্ধ আন্তঃজেলা গরু চোর চক্রের সক্রিয় সদস্য। তাহাদের মধ্যে কয়েকজন অত্র থানা এলাকার নিরীহ লোকদের গোয়াল ঘর হইতে গরু চুরি করিয়া অত্র থানার এলাকার বিভিন্ন বাজারে মাংস বিক্রেতা (কসাই) তথা অপরাপর আসামীদের সাথে যোগসাজস করিয়া রাতের অন্ধকারে গরু গুলি জবাই করতঃ গরুর সনাক্তকরণ চামড়া ও মাথার সিং গোপন করিয়া ফেলে এবং মাংসগুলি খোলা বাজারে বিক্রি করে। তাহাদেরকে অদ্য ২৫/০৩/২০২১ইং তারিখে যথাযথ পুলিশ পাহারায় বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়। ৪নং আসামী সেলিম মুন্সি উক্ত চোরাই কাজে তাহার একটি নাম্বার বিহীন নীল রংয়ের পিক-আপ ব্যবহার করে বিধায় তাহার পিক-আপটিও জব্দ করা হয়। উক্ত মামলার চুরি হওয়া গরু গুলো উদ্ধারে জোড় তৎপরতা অব্যাহত আছে। কচুয়া থানা এলাকায় গরু চুরি প্রতিরোধে গরু চোরদের বিষয়ে এবং চুরি করা জবাই করিয়া মাংস বিক্রয়কারী বিরুদ্ধে আমাদের এই অভিযান অব্যাহত থাকিবে।

Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker