রাজনীতি

মানবিক যুবলীগের প্রশংসায় শেখ হাসিনা।

মানবিক যুবলীগের প্রশংসায় শেখ হাসিনা।

 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের একমাত্র অভিভাবক, জননেত্রী শেখ হাসিনা মহান জাতীয় সংসদে যুবলীগের ভূঁয়সী প্রসংশা করেছেন। তিনি বলেন যুবলীগ করোনা সংকট মোকাবিলায় আত্মসচেতনতা বৃদ্ধি ও স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী বিতরণসহ দেশব্যাপী করোনা ভাইরাস আক্রান্তে মৃত ব্যক্তির লাশ দাপন, বিয়াল্লিশ লক্ষ দরিদ্র পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান, কৃষকের আবাদি জমির ধান কাটাসহ মুজিব বর্ষে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচী অব্যাহত রেখেছে।

 

এই সকল কর্মকান্ডের মধ্যে দিয়ে নেতৃত্বের ইতিবাচক পরিবর্তনে আওয়ামী যুবলীগ দেশবাসীর কাছে প্রশংসিত ও আস্থা অর্জন করেছে। মানবিক রাজনৈতিক সংগঠন হিসাবে যুবলীগ সুখ্যাতি অর্জন করায় শেখ হাসিনা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এতে তরুণ যুবসমাজকে ভিষণভাবে অনুপ্রাণিত করেছে। ভবিষ্যতেও যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে সামস্ পরশ এবং সাধারণ সম্পাদক মঈনুল হোসেন খান নিখিল এর কালজয়ী নেতৃত্বে যুব সমাজ দেশপ্রেম এবং জনকল্যাণমুখী কাজে নিজেদের আরো সম্পৃক্ত করবে।

 

এছাড়া বৈশ্বিক করোনাভাইরাসের এই সংকটকালে প্রাকৃতিক দূর্যোগ ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফানে’ সৃষ্ট পরিস্থিতি মোকাবেলায় দেশব্যাপী অসহায় সাধারণ মানুষের পাশে থেকে নিরবচ্ছিন্ন সাহায্য সহায়তা পৌঁছে দেয় সারা বাংলার যুবলীগ নেতা-কর্মীরা।

 

এক্ষেত্রে ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের জনকল্যাণমূলক কর্মকান্ড সমূহও প্রশংসার দাবি রাখে। বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ডায়নামিক চেয়ারম্যান অধ্যাপক শেখ ফজলে সামস্ পরশ এর সার্বিক দিক-নির্দেশনায় এবং সাধারণ সম্পাদক, মানবিক যুবনেতা মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর সার্বিক সহযোগিতা, ব্যাবস্থাপনা ও পরামর্শে সারাদেশ’সহ ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের পক্ষে করোনা মহামারির ক্রান্তিলগ্ন থেকে পরিচ্ছন্ন কর্মসূচী, আত্মসচেতনতা বৃদ্ধি, স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রি প্রদান ও দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে খাদ্য সহায়তামূলক কর্মকান্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত করেছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনা যখন যুবলীগের প্রসংশায় পঞ্চমুখ, তখন’ই মানবিক এই কর্মকান্ডের প্রকৃত সুফল ও তৃপ্তি অনুভব করি।

 

শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকাশর্তেও চৌকশ এই মানবিক যুবনেতা মাইনুল হোসেন খান নিখিল দেশব্যাপী জনকল্যাণমুখী ইতিবাচক সংস্করণে যুবলীগকে পরিচালনা করে জনসম্পৃক্ত রূপে গড়ে তোলার ভিশনকে কার্যকর ও সফল বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। যার ফলশ্রুতিতে সাম্প্রতি প্রকৃতিক দূর্যোগ ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফানে’ ক্ষতিগ্রস্ত পরিস্থিতি কাটিয়ে করোনা মোকাবিলায় দেশের অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর স্বাভাবিক জীবন যাপনে নেতিবাচক প্রভাব পড়েনি।

 

দূর্যোগ, সংকটে দেশবাসীর পাশে থেকে পরিস্থিতি মোকাবিলার এই সক্ষমতাকে যুব নেতৃত্বের আমূল-পরিবর্তনকেই নির্দেশ করে। জননেত্রী শেখ হাসিনা রত্ন চিনতে ভুল করেননি। যে মূলমন্ত্রের ভিত্তিতে নবজাতক বাংলাদেশের যুব সমাজকে আত্মনির্ভরশীল রূপে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু মুজিবের নির্দেশনায় ১৯৭২ সালের ১১ই নভেম্বর যুব আন্দোলনের পথিকৃৎ শহীদ শেখ ফজলুল হক মনি যে আওয়ামী যুবলীগ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনার সার্বিক নির্দেশনা ও তত্ত্বাবধানে বর্তমান যুবলীগ তার পুরনো ঐতিহ্য ফিরে পেয়েছে বলে বিশ্বাস করে।

Close
Close