জেলার খবর

নিখোঁজের ২৭ দিন পর নির্মাণ শ্রমিকের লাশ উদ্ধার !

ফেনীর পরশুরামে নিখোঁজের ২৭ দিন পর নির্মাণ শ্রমিকের লাশ উদ্ধার !

ডেস্ক রিপোর্ট : পরশুরামে ১নং মির্জানগর ইউনিয়নের রাঙ্গামাটিয়া গ্রামে ইয়াছিন(৩০) নামের এক নির্মাণ শ্রমিকের লাশ নিখোঁজের ২৭ দিন পর বাড়ির পাশে ভারতীয় সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

জানা যায় গত ১৩ এপ্রিল(মঙ্গলবার) বিকাল ৪টার দিকে ফেনীর উদ্দেশ্য বাড়ি থেকে বের হয় রাজমিস্ত্রী ইয়াছিন(৩০)।
কিন্তু সন্ধ্যা হয়ে যাওয়ার পরেও বাড়িতে না আসায় পারিবারের লোকজন তার মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলে তার ফোন বন্ধ পায়।পরিবারের সদস্যরা আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতে খোঁজ নিলে কোথাও যায়নি বলে জানান স্বজনরা।

এবিষয়ে নিহত ইয়াছিনের বড় ভাই মোঃ নান্টু(৪০) ১৪ এপ্রিল(বুধবার) পরশুরাম থানায় সাধারণ ডায়েরি করলেও থানা পুলিশের কোন তৎপরতা না থাকায় তার পরিবারের লোকজন ডিবি কার্যালয়ে অভিযোগ করেছিলেন।

ডিবি পুলিশ জিডির রেফারেন্সে ঘটনার তদন্ত করে এবং তদন্ত তথ্য সূত্রের ভিত্তিতে ৮ই মে (শনিবার) একই এলাকার রাজমিস্ত্রী সেলিম(২৯) কে আটক করে।
পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তার জবানবন্দির ভিত্তিতে ৯’মে (রবিবার) দুপুরে রাঙ্গামাটিয়া গ্রামের ভারতীয় সীমান্তবর্তী এলাকার বাংলাদেশ- ভারত মেইন পিলারের ১০০-১৫০ গজ ভিতরে ভারতের কাঁটাতারের পাশ থেকে ইয়াছিন(৩০) এর লাশ উদ্বার করে গোয়েন্দা পুলিশ।

জানা যায়, আটককৃত রাজমিস্ত্রী সেলিম(২৯) একই এলাকার আবুল কালামের ছেলে।

গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক এ এন নুরুজ্জামান লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেছন।
এব্যপারে তিনি আরও জানান,ইয়াছিনের সাথে কথিত কষ্টিপাথর সংক্রান্ত একটি বিষয় নিয়ে হত্যাকারীরা প্রথমে তাকে টাকা লেনদেন করবে বলে লোভ দেখিয়ে ফেনী শহরে নিয়ে আসে।এসময় তাদের মধ্যে গড়মিল দেখা দিলে তাকে নিঃসংশ ভাবে হত্যা করে। পরে একটি চটের বস্তায় করে সিএনজি অটোরিকশা যোগে ভারত সীমান্তের কাটা তারের ভেতরে লাশ গুম করার উদ্যেশ্য মাটি চাপা দেয়। তবে ঘটনার পূর্ণ তদন্ত চলছে।

তার মতে হত্যাকারীরা খুব সুক্ষ ভাবে হত্যার পরিকল্পনা করেছিল।কিন্তু তারা সফল হয়নি। ঘটনায় আটককৃতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker