চান্দিনাজাতীয়

চান্দিনার সোনার মানুষ ছিলেন অধ্যাপক মোঃ আলী আশরাফ এমপি -সাবেক পৌর মেয়র মফিজুল ইসলাম

চান্দিনার সোনার মানুষ ছিলেন অধ্যাপক মোঃ আলী আশরাফ এমপি

-সাবেক পৌর মেয়র মফিজুল ইসলাম

 

চান্দিনার সোনার মানুষ ছিলেন অধ্যাপক মোঃ আলী আশরাফ এমপি। তিনি ছিলেন আমার পারিবারিক অভিভাবক। কথাগুলো বলছিলেন চান্দিনা পৌরসভার সাবেক সফল মেয়র ও চান্দিনা পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মফিজুল ইসলাম।

 

তিনি আরও বলেন- সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত কমিটির সভাপতি ও সাবেক ডেপুটি স্পিকার অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ এমপি’র মৃত্যুতে আমার পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তিনি ছিলেন বরেণ্য অর্থনীতিবিদ। সব সময় দেশ ও দেশের মানুষের কথা ভাবতেন। চান্দিনার মেহনতি মানুষের নিয়ে তিনি সব সময় চিন্তা করতেন। তাদের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করার জন্য আমাদের নির্দেশনা দিতেন।

 

দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর দেশের অন্য এমপি’রা কি করেছেন জানিনা। তিনি তখনও অসহায় ও দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়াতে নির্দেশ দিয়েছিলেন। ২০২০ সালে ফেব্রুয়ারিতে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হলো। আমি তখন পৌরসভার মেয়র। উনার নির্দেশনা নিয়ে পৌর পরিষদের সকল কাউন্সিলরদেরকে ঐক্যবদ্ধ করে আমরা মানুষের পাশে দাঁড়ালাম। সাধ্যমত খাদ্য সহায়তা করার নির্দেশনা দিলেন। মানুষকে সচেতন করতে বললেন। আমরা উনার নির্দেশ মতো কাজ করে যাচ্ছিলাম।

 

অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ আমাকে অত্যন্ত স্নেহ করতেন। আমি ১৯৮৬ সাল থেকে উনার পাশে ছিলাম। আমৃত্যু তিনি আমাকে স্নেহ করেছেন।

 

বিএনপি এবং পরে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় থাকাকালে আমি এবং আওয়ামীলীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের অনেক নেতারাই মামলার শিকার হয়েছি। তিনি সব সময় নেতাকর্মীদের পাশে ছিলেন। মামলা চালিয়ে আমাদের জেল থেকে বের করে এনেছেন।

 

নিজ হাতে আমাকে রাজনীতিতে ফ্রন্ট লাইনে নিয়ে এসেছেন। ১৯৯৭ সালে চান্দিনা পৌরসভা গঠনের পর তিনি আমাকে পৌর পরিষদের সদস্য বানিয়েছিলেন। এরপর আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী করেন। প্রথম নির্বাচনে আমি বিজয়ী হতে পারিনি। তিনি পরবর্তী নির্বাচনে আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগসহ সবাইকে ঐক্যবদ্ধ করে আমাকে বিজয়ী করেছিলেন। আমি সব সময় উনার কাছে থাকার চেষ্টা করেছি। আমি উনার প্রতি কৃতজ্ঞ।

 

উনার মৃত্যুতে চান্দিনা তথা দেশ ও জাতির অপূরণীয় ক্ষতি হলো। আমি উনার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই। উনার ছেলে চান্দিনা উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও এফবিসিসিআই পরিচালক মুনতাকিম আশরাফ টিটু সহ উনার পরিবার যেনো এই শোক সহ্য করতে পারে মহান আল্লাহ্ তায়ালা তাদের ধৈয্য ধারণ করার ক্ষমতা দিন। আমি সব সময় উনাকে শ্রদ্ধা করি। আল্লাহ্ উনাকে বেহেশত নসিব করুন।

 

আমার জীবনের শেষ নিঃশ^াস থাকা পর্যন্ত আমি অধ্যাপক আলী আশরাফ এম.পি’র আদর্শকে বাস্তবায়ন করার জন্য কাজ করে যাবো ইনশাআল্লাহ্।❤🖤

Close
Close