অর্থনীতিআন্তর্জাতিক

রাইড শেয়ারিং পাঠাও’ এর সহ প্রতিষ্ঠাতা, ফাহিম সালেহ’র মরদেহ উদ্ধার করেছে নিউইয়র্ক পুলিশ

বাংলাদেশের জনপ্রিয় রাইড শেয়ারিং পাঠাও’ এর সহ প্রতিষ্ঠাতা, ফাহিম সালেহ’র মরদেহ উদ্ধার করেছে নিউইয়র্ক পুলিশ।পুলিশ বলছে ম্যানহাটনে তাঁর ফ্ল্যাটে পেশাদার খুনীরাই সম্ভবত তাকে খুন করেছে।তাকে হত্যা করতে ব্যবহার করা হয়েছে বৈদ্যুতিক করাত । খুনীরা তার সাথে একই লিফটে ওঠেছিল দেখা যাচ্ছে সিসি ক্যামেরায়।তারা গ্লভস, মাস্ক ও হ্যাট পরে ছিল ।

রিপোর্ট বলছে : সালেহ সম্প্রতি নাইজেরিয়ার  লেগোসে মোটরবাইক রাইডিং শেয়ারের ব্যবসা শুরু করেছিলেন।তাঁর এই ব্যবসার কারনে নাইজেরীয় একটি কোম্পানীর ব্যবসায় ধ্বস নামে । তিনি ম্যানহাটনে ২.২৫ মিলিয়ন ডলারে ফ্ল্যাটটি কিনেছিলেন। সারাদিন ফোনে না পেয়ে তার বোন পুলিশকে খবর দেন । রিপোর্টে হত্যার রোমহর্ষক বর্ননা দেয়া হয়েছে ।

 

প্রথম আলো বলছে : ফাহিম সালেহর জন্ম ১৯৮৬ সালে সৌদি-আরবে। তাঁর বাবা সালেহ উদ্দিন চট্টগ্রামের, আর মা নোয়াখালীর মানুষ। ফাহিম পড়াশোনা করেছেন আমেরিকার বেন্টলি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইনফরমেশন সিস্টেম নিয়ে। তিনি রাইড শেয়ারিং অ্যাপ পাঠাওয়ের অন্যতম উদ্যোক্তা। ২০১৪ সালে নিউইয়র্ক থেকে ঢাকায় গিয়ে পাঠাও চালু করে নতুন প্রজন্মের উদ্যোক্তা হিসেবে খ্যাতি লাভ করেন তিনি। ফাহিম নাইজেরিয়া ও কলম্বিয়ায় এমন আরও দুটি রাইড শেয়ারিং অ্যাপ কোম্পানির মালিক। ইন্দোনেশিয়াসহ আরও কয়েকটি দেশেও তিনি ব্যবসা বিস্তৃত করেছিলেন।

Close
Close