জেলার খবরদেবিদ্বার

মানবিক নেতা লিটন সরকার অসুস্থ অসহায় পরিবারের দায়িত্ব নিলেন।

আজ হয়তো কবি এই কথা গুলো শুনতে পাচ্ছে না। শুধু সহানুভূতি নয়, একটা অসহায় পরিবারের পাশে থেকে দায়িত্ব নেওয়া, টাকার অভাবে গত ১১ মাস চিকিৎসা সেবা নিতে না পাড়া পরিবারের একমাত্র রোজগারের ব্যক্তিটির অপারেশনের দায়িত্বও নিলেন মানবতার দূত হয়ে আবির্ভূত কুমিল্লা উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা লিটন সরকার।

জানা যায়, কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা মহিচাইল ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামের রিক্সা চালক শাহ জালাল গত ১১ মাস ধরে অসুস্থ পঙ্গু হয়ে বিনা চিকিৎসায় বিছানায়। পরিবারে বাবা নেই, আছেন মা, ১২ বছর বয়সী ছোট্ট ভাই, স্ত্রী সহ চার সন্তানের জনক শাহ জালাল। ডাক্তার বলেছেন অপারেশন করতে হবে। কিন্তু যে পরিবারটি প্রতিদিন এক বেলা ভাত খেতে পারেনা সে কি করে অপারেশন করার খরচ বহন করবে! এমন সময় মানবতার দূত হয়ে এগিয়ে আসেন লিটন সরকার। অসহায় পরিবারটিকে বাচাঁতে তিনি পরিবারটিকে আশ্বস্ত করেন সর্বক্ষেত্রে সহযোগিতা করার।

লিটন সরকার বলেন, আমি পরিবারটির দায়িত্ব নিলাম, আমি ভাত খেয়ে থাকলে এই পরিবারটিও খাবে। এবং অসুস্থ শাহজালালের অপারেশনের দায়িত্বও নিলেন। তিনি জানান আগামী শুক্রবার শাহজালালের অপারেশন হবে। এ সময় তিনি সমাজের বিত্তবানদের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে আহবান জানান।

উল্লেখ্য লিটন সরকার করোনাকালিন সময়ের একজন মহা যোদ্ধা। যিনি ইতিপূর্বে তার মানবিক সকল কাজের জন্য পুরস্কৃত হয়েছেন।

 

করোনা মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষের বাড়িবাড়ি গিয়ে নগদ অর্থ প্রদান, ব্যক্তিগত তহবিল থেকে খাদ্যসামগ্রী ও ত্রাণ বিতরন করেন লকডাউনে ঘর বন্দি মানুষের মাঝে।

শুধু তাই নয়, তিনি তার মালিকানাধীন দোকানের ভাড়াটিয়াদের তিন মাসের দোকান ভাড়া প্রায় দুই লক্ষ টাকা মওকুফ করেন।

স্বেচ্ছাসেবকলীগ এই নেতা করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ও কষ্টে থাকা মানুষের কল্যাণে পাশে দাঁড়াতে গঠন করেন এক যাক তরুণ – যুবাদের সমন্বয়ে ১০১ জন বিশিষ্ট স্বেচ্ছাসেবকলীগ টিম।

এই পর্যন্ত তিনি এবং তার টিম করোনায় মৃত ২৫টি মৃতদেহ দাফন করে মানবতার অনন্য নজির স্থাপন করেন।

Close
Close