আন্তর্জাতিকজাতীয়

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা মা এর নিকট খোলা চিঠি,,

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা মা এর নিকট খোলা চিঠি,,শ্রদ্ধেয় মা জননী আমার সালাম বিবেন।আশা করি ভাল আছেন- আমি মোঃগোলাম মোস্তফা (বি,এস-সি) আপনার তৃনমূল একজন সচেতন কর্মি।আমি সাবেক পরিচালক ও  কোষাদক্ষ এবং RPCL  পরিচালক ছিলাম। আমি তার পর নির্বাচিত প্রতিনিথি হয়েও প্রতিনিথিত্ব করতে পারি নাই,,তার বিচার চাই-কেন প্রতিনিথি হয়ে ও প্রতিনিথিত্ব কার কারনে করতে পারলাম না;;(কারন ব্যাখ্যা-আমাদের ৮ উপজেলার সকল নির্বাচিত পরিচালক ছিলাম,, শুধু ৫ং এলাকার পরিচালক ও সাবেক সভাপতি মোঃআঃখালেক (মুরাদনগর)সাহেবের নির্বাচন কোন কারনে নির্বাচন কমিশন হেদায়ে উল্ল্যাহ্ আরইবি- ঢাকা অনিবার্য কারন বশত নির্বাচন করান নাই-একজন নির্বাচিত হতে না পারার কারনে মহামান্য হাইকোর্টে বিচার দায়ের করেন,, আমাদের বোর্ডের কায্যক্রম বন্ধ করে দেন,,এখানে আমাদের কি অপরাধ – বিচার চাই অপরাধীর।।মামলা শেষ হল।২/RPCL  এ পরিচালক থাকা কালিন সময়ে বার্জ মাউন্টেন বার্জের অবস্থান ছিল বাহাদুরাবাদ ঘাটে নাবিক ও কর্মচারীদের ১ বছরের বেতন পরিশোধ সহ সকল মামলার শুধু আর্কিমিডিসের সূত্রটির ব্যাখ্যা দেওয়ার পর সকল মামলা ভূয়া প্রমানিত হয় এবং উক্ত মামলা শেষ হয়।।আমি এখানে প্রতিনিথীত্ব করেছিলাম,শুধু নির্বাচন কমিশন এর কুকর্মের কারনে – আমি এ বোর্ডে আর থাকতে পারলাম না।যোগ্যতা হারালাম।।মর্মে আমাকে জানানো হয়।। ৩//আমাদের অবর্তমানে সিলেকশান বোর্ড গঠন করেন- এখানেও মনোনয়ন-পত্র জমা দিই,,আমাদের নির্বাচিত প্রতিনিথিদের মনোনীত না করে আমার আসনে বাবু গৌড়াঙ্গ চন্দ্র মজুমদার রামমোহন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কে মনোনীত করেন।।৪//আমরা তিন জন প্রতিনিথি বৈধ প্রার্থী মনোনিত হই। আমি গোলাম মোস্তফা, জাকির হোসেন,বাবু গৌড়াঙ্গ।। আমি আর জাকির কেন্দ্র পরিবর্তন করে কাদুটি উচ্চ বিদ্যালয়ে করতে নির্বাচন কমিশন উত্তম কুমার সেন এর নিকট দরখাস্ত করি সাথে চান্দিনা উপজেলার চেয়ারম্যান সহ  সংশ্লিষ্ট ৪ জন চেয়ারম্যান সাহেবগন কেন্দ্র পরিবর্তনের জন্য শুপারিশ করে কমিশনের নিকট দরখাস্ত জমা দেই এবং মৌখিক ভাবে বক্তব্য দেই-কে শুনে কার কথা,,আমি জোয়াগ ইউনিয়নের, চান্দিন-জাকির হোসেন ঝলম, বরুড়া উপজেলা । আমি যেখানে কাদুটি উচ্চ বিদ্যালয়টি সেখান থেকে ১০ কিলোমিটার,,তাও বাবু গৌড়াঙ্গ সাহেবের বাড়ীর থেকে ৬ কিলোমিটার,, জাকির সাহেবের বাড়ীও ৫ কিলোমিটার,, সীমানা তিন প্রার্থীর লোকেশনের মাঝখানে হবার কথা,সে দিকে ও বিবেচনা করেন নাই।।এদিক চান্দিনায় ভোটার ২৬০৩৭..আর বরুড়ার ভোটার ১৯৯২৫।নির্বাচন কমিশনার বাবু উত্তম কুমার সেন প্রায়২০০ গজের মধ্যে অবস্হিত পানিপাড়া বালিকা বিদ্যালয়টি কেন্দ্র করে চোখে ধুলি দেন।আমি  এ কর্মের জন্য তিব্র প্রতিবাদ করি।সকল বিষয়টি আরইবির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মাইন উদ্দীন স্যারের সাথে দেখা করি এবং সকল প্রমান পত্র সহ দরখাস্ত করে বিবেচনা করে কেন্দ্র পরিবর্তনের কথা বলেছি—-না তার প্রতিকার পেলাম না—অতএব “মা” সকল দিক বিবেচনা করে আপনার ১০০% বিদ্যুৎ সেবা দিতে আমাকে দয়াকরে গ্রহন করবেন।।বিনিতঃমোঃগোলাম মোস্তফা, সাবেক পরিচালক।কুমিল্লা পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-১, চান্দিনা,কুমিল্লা।

 

 

 

Close
Close