দেবিদ্বার

দেবিদ্বারে প্রকাশ্যে মারধর করে টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ

দেবিদ্বারে প্রকাশ্যে মারধর করে টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ

 

দেবিদ্বার প্রতিনিধি:

 

কুমিল্লার দেবিদ্বারে দিনে দুুপুরে প্রকাশ্যে মারধর করে নগদ টাকাসহ মুল্যবান দলিল ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে।  মঙ্গলবার দুপুরে দেবিদ্বার সাবরেজিস্ট্রী অফিসের ভিতরে এ ঘটনা ঘটে।

 

ভুক্তভোগী গোলাম সাদেক জানান, সবার সামনে প্রকাশ্যে মারধর করে ব্যাগে থাকা জমি বায়নার চার লক্ষ টাকা, জমির মূল দলিল, পর্চা, খাজনা রশিদ ছিনিয়ে নেয়। ভুক্তভোগী গোলাম সাদেক রাজামেহার ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের মনিরুজ্জামানের ছেলে।

 

ভুক্তভোগী গোলাম সাদেক বলেন, আমি ঢাকায় ব্যবসা করার কারণে পরিবার নিয়ে ঢাকায় বসবাস করছি। মঙ্গলবার দুপুরে আমি ঢাকা থেকে দেবিদ্বার সাবরেজিট্রি অফিসে আমার একটি জায়গা বিক্রির বায়না দলিল ও অন্য আরেকটি এওয়াজ দলিল করার জন্য আসি। এ সময় ১০/১২জন ছেলে নিয়ে আমার ওপর প্রকাশ্যে অতর্কিত হামলা চালায়। আমাকে মাধর করে ব্যাগে থাকা জায়গার মূল কাগজপত্র ও বায়নার চার লক্ষ টাকা জোর পূর্বক ছিনিয়ে নেয়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় পুলিশ আমাকে উদ্ধার করে। হামলাকারীরদের মধ্য আমি ৪/৫ জনকে চিনতে পেরেছি। তারা হলো আমানুল, শরিফুল, জামাল, মামুন, আরিফুল।

 

প্রত্যক্ষদর্শী দলিল লেখক শাহাবুদ্দিন বলেন, গোলাম সাদেক দলিল লেখাচ্ছিলেন। কোথায় থেকে ১০/১২ জন লোক এসে তাকে টানা হেচরা করে বাহিরে নিয়ে যায়। পরে তাকে পুলিশ উদ্ধার করে। তার হাতে একটি ব্যাগ ছিলো । ওই ব্যাগে ছিনিয়ে যায় তারা।

 

অভিযুক্ত আমানুল এ প্রতিবেদককে বলেন, গোলাম সাদেকের সাদেক যে জায়গার বায়না করছিলো  ওই জায়গা আমারও অংশীদার রয়েছে। অথচ ওনি আমাকে না জানিয়ে জমি বায়না করতে এসেছিলেন। খবর পেয়ে আমরা গিয়ে তাকে বাধা দেই। কিন্তু মারধর বা টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার কোন ঘটনা ঘটেনি। তিনি মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।

 

এ ব্যাপারে দেবিদ্বার এএসআই মো. শাহাদাত হোসেন বলেন, ভুক্তভোগী গোলাম সাদেক থানায় কল করে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছার আগেই হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যায়।

 

এ ব্যাপারে দেবিদ্বার থানার ওসি মো. জহিরুল আনোয়ার বলেন, আমার কাছে এ সংক্রান্ত কোন লিখিত অভিযোগ আসেনি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Close
Close