জাতীয়

কচুয়ার তাফাজ্জল হোসেন নিখোঁজ হওয়ার ২২ দিনেও খোজ মিলেনি।

কচুয়া উপজেলার দারাশাহী-তুলপাই বাজারের মুরগী ব্যবসী ও র্ফামের মালিক উপজেলার দোঘর গ্রামের অধিবাসী তাফাজ্জল হোসেন নিখোঁজ হওয়ার ২২ দিনেও খোজ মিলেনি। এ ঘটনায় নিখোঁজ তাফাজ্জল হোসেনের স্ত্রী পারুল বেগম বাদী হয়ে গত ২২ জুন কচুয়া থানায় একটি লিখিত জিডি করেন। জিডির নং ৯১৩।

থানায় লিখিত জিডিতে সূত্রে জানা যায়, ব্যবসায়ী তাফাজ্জল হোসেন দারাশাহী-তুলপাই গ্রামের গোলাপ শাহ’র নির্মানাধীন জায়গায় র্ফাম ভাড়া নিয়ে ব্যবসা কাজ পরিচালনা করে আসছেন। তাফাজ্জল হোসেন করোনার কারনে গত কয়েক মাস যাবৎ ভাড়া পরিশোধ করতে না পারায় মালিক গোলাপ শাহ ভাড়ার টাকার জন্য বিভিন্ন ভাবে চাপ সৃষ্টি করে। এতে ব্যবসায়ী তাফাজ্জল হোসেন ভিষন চিন্তায় পড়ে যান। তবে চাপ সৃষ্টির কথা অস্বীকার করেছেন দোকান মালিক গোলাপ শাহ। তিনি বলেন, আমি তাফাজ্জল হোসেনের কাছে দোকান ভাড়া পাবো, এর বেশি কিছু জানিনা ।

প্রতিদিন তাফাজ্জল হোসেন ব্যবসায়িক কাজ শেষে রাতে নিজ বাড়ীতে চলে যেতেন। কিন্তু গত ১৫ জুন ব্যবসার কাজ শেষে তাফাজ্জল হোসেন বাড়ীতে ফিরেনি। এরপর থেকে তার ব্যবহৃত মোবাইল ০১৬৮৪৫৫৫৮৩ নাম্বারটিও বন্ধ পাওয়া যায়।

তার স্ত্রী পারুল বেগম আরো জানান, গত কয়েক দিন আমার নিকট আত্মীয় স্বজনের বাড়ীসহ বিভিন্ন স্থানে অনেক খোঁজাখুজি করে স্বামীকে কোথাও তার সন্ধান না পেয়ে পরে ২২জুন কচুয়া থানায় লিখিত জিডি দায়ের করি।

এদিকে কচুয়ার দারাশাহী-তুলপাই বাজারের ব্যবসায়ী তাফাজ্জল হোসেন বেচেঁ আছে না অন্য কিছু এ চিন্তায় তার পরিবারের সদস্যরা খুবই উদ্বিগ্ন ও র্নিঘুম রাত কাটাচ্ছেন। কেউ নিখোঁজ ব্যবসায়ী তাফাজ্জল হোসেনের সন্ধান পেলে ০১৭৫৩-৯৪৩২১৭ নাম্বারে যোগাযোগ করতে পরিবারের পক্ষে অনুরোধ করা হয়েছে।

Close
Close